গাজীপুর জেলার ভৌগলিক অবস্থান এবং জনসংখ্যা পরিচিতি- ২য় পর্ব

399

গাজীপুর জেলার ভৌগলিক অবস্থান এবং জনসংখ্যা ও জনবসতির পরিচিতি- পর্ব ০২

ভৌগোলিক অবস্থানঃ
গাজীপুর বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলে অবস্থিত উচ্চভূমিসমৃদ্ধ জেলা। এখানে একদিকে রয়েছে ছোট ছোট টিলা ও বনভূমি, আবার অন্যদিকে খাল-বিল ও কিছু নিচু জমি বিরাজমান।

গাজীপুর জেলার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বাংশের উচ্চতা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৬মিটার এবং পশ্চিমদিকে কালিয়াকৈরে অবস্থিত টিলার উচ্চতা প্রায় ৩০ মিটার। পশ্চিম থেকে পূর্ব দিক ঢালবিশিষ্ট এবং পশ্চিমে ব্রক্ষ্মপুত্র প্লাবনভূমির দিকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অবনমিত সোপান দ্বারা ক্ষত-বিক্ষত। গাজীপুর জেলার ভাওয়ালগড় পশ্চিম ৬টি সারিবদ্ধ ও পরস্পর সমান্তরাল ফল্টস দ্বারা গঠিত।

গাজীপুর জেলার ভৌগলিক অবস্থান এবং জনসংখ্যা ও জনবসতির পরিচিতি

৯ থেকে ২১ কিলোমিটার লম্বা এই ফল্টসগুলো টাঙ্গাইল জেলা পর্যন্ত বিস্তৃত। ফল্টস-এর ভূ-অবস্থানিক কারণে এ অঞ্চলে মাঝে মাঝে ভূমিকম্পন অনুভূত হয়। উত্তরদিকে শ্রীপুরে হারিয়ে যাওয়া লবলং নদীর উৎসমুখ বরাবর – রয়েছে। টিলা, নিচুভূমি ও বনভূমি মিলিয়েই গাজীপুর জেলার অবস্থান। জেলার উত্তরে বনভূমির মধ্যবর্তী এলাকায় উত্তর-দক্ষিণ বরাবর শিরার ন্যায় একটি উচ্চভূমি বিদ্যমান, যা তুরাগ ও বানার নদীর জল বিভাজিকা হিসেবে চিহ্নিত। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে গাজীপুরের বনভূমি এলাকার গড় উচ্চতা ১৮ মিটার। তবে বনভূমির কিছু এলাকার উচ্চতা ৫০ মিটারের বেশি। এগুলোকে বলা হয় পাহাড়ি এলাকা ।

গাজীপুরের জলবায়ু সমভাবাপন্ন ও নাতিশীতোষ্ণ। বার্ষিক সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ডিগ্রি সে এবং সর্বনিম্ন ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বার্ষিক বৃষ্টিপাত ২৩৭৬ মিলিমিটার।

উত্তরে ময়মনসিংহ ও কিশোরগঞ্জ জেলা, পূর্বে কিশোরগঞ্জ জেলার অংশবিশেষ ও নরসিংদী জেলা, দক্ষিণে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ এবং পশ্চিমে ঢাকার অংশবিশেষ সেভার) ও টাঙ্গাইল জেলা। গাজীপুর জেলার বিস্তৃতি বাংলাদেশের মোট ভূমির ১.১৮ ভাগ।

২৩ ডিগ্রি ৫৩ ইঞ্চি থেকে ২৪ ডিগ্রি ২৪ ইঞ্চি উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০ ডিগ্রি ৯ ইঞ্চি থেকে ৯০ ডিগ্রি ৪২ ইঞ্চি পূর্ব দ্রাঘিমা পর্যন্ত।

উপজেলার নাম আয়তন নদী এলাকা বনভূমি সর্বমোট আয়তন জেলা আয়তনের হার(%)
গাজীপুর সদর ৩৬৩.৪৮ ৫৪.৫২ ৪১৮ ২৪.০০
কালিয়াকৈর ২৩৩.০৬ ১.২২ ৭৯.৭২ ৩১৪ ১৮.০৪
কালীগঞ্জ ১৫৬.৫১ ২.১৫ ০.৩৪ ১৫৯ ৯.১৩
কাপাসিয়া ৩২৮.৯১ ১০.৬৯ ১৭.৪০ ৩৫৭ ২০.৫১
শ্রীপুর ৩৪০.০৪ ৩.১৬ ১২১.৪৪ ৪৬৫ ২৬.৭১
টঙ্গী ২৭.০৭ ০.৩ ২৮ ১.৬১

 

উপজেলাভিত্তিক গাজীপুরের ভৌগোলিক অবস্থান
উপজেলাভিত্তিক গাজীপুরের ভৌগোলিক সীমানা পূর্বে সদর উপজেলার নাম ছিল জয়দেবপুর থানা। ১৯৮৪ সালে জেলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পর নতুন নামকরণ হয় গাজীপুর সদর উপজেলা। এই উপজেলার উত্তরে শ্রীপুর ও কাপাসিয়া উপজেলা, পশ্চিম কালিয়াকৈর উপজেলা ও ঢাকা (সাভার উপজেলা ও আশুলিয়া থানা), পূর্বে শ্রীপুর ও কালীগঞ্জ উপজেলা, দক্ষিনে ঢাকা জেলার উত্তর সীমানা । জেলা সদর জয়দেবপুর মৌজায় চিলাই নদীর দক্ষিণ তিরে অবস্থিত কালিয়াকৈর উপজেলার উত্তরে শ্রীপুর উপজেলা, পূর্বে গাজীপুর সদর উপজেলা, ঢাকা জেলার সাভার উপজেলা এবং পশ্চিমে টাঙ্গাইল জেলার পশ্চিম সীমানা।উপজেলা শহর বংশী নদীর তীরে অবস্থিত।

কাপাসিয়া উপজেলার উত্তরে ব্রহ্মপুত্র নদ এবং কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর ও কটিয়াদী উপজেলা, পূর্বে নরসিংদী জেলার পশ্চিম সীমানা(মনোহরদী উপজেলা), দক্ষিণে কালীগঞ্জ উপজেলা এবং পূর্বে শ্রীপুর উপজেলা। কাপাসিয়া উপজেলা শহর শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে অবস্থিত ।

এ উপজেলার উত্তরে ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও ও ভালুকা উপজেলা, ব্রহ্মপুত্র নদ ও সূতী নদী, পশ্চিমে ভালুকা উপজেলা ও টাঙ্গাইল জেলার পূর্ব সীমানা, পূর্বে কাপাসিয়া উপজেলা এবং দক্ষিণে গাজীপুর সদর, কালিয়াকৈর ও কালীগঞ্জ উপজেলা।

কালীগঞ্জ উপজেলার উত্তরে কাপাসিয়া উপজেলা, পূর্বে শীতলক্ষ্যা নদী, নরসিংদী জেলার পূর্ব সীমানা, দক্ষিণে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলা ও ঢাকা জেলা এবং পশ্চিমে গাজীপুর সদর উপজেলা ।

গাজীপুর সদর উপজেলার টঙ্গী ও গাজীপুর পৌরসভা এবং গাছা, পূবাইল, কোণাবাড়ি, কাশিমপুর, কাউলতিয়া ,বাসন ইউনিয়নকে নিয়ে গঠিত হয় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। এই সিটি কর্পোরেশন মধ্যেই অবস্থিত শিল্পকারখানায় সমৃদ্ধ নতুন নগর –জনপদ ।গাজীপুরের অধিকাংশ পোশাক কারখানা এ অঞ্চলে স্থাপিত । গাজীপুরসদর উপজেলায় রয়েছে কিছু নিম্নভূমি ও সামান্য টেকটিলা, কাপাসিয়ায় রয়েছে পলিসমৃদ্ধ ভূমি, টিলাসমৃদ্ধ শালবন ও কিছু ঝিলবিল, কালীগঞ্জে কিছু সমতল ভূমি, জলাশয় ও বিল, শ্রীপুরে টিলা ও উঁচু ভূমির আধিক্য এবং কালিয়াকৈর উপজেলায় রয়েছে নদী, খাল-বিল, নিচুভূমি ও কিছু টিলা।

জেলা/উপজেলার ভৌগলিক পরিচিতি ও পরিসংখ্যান
আয়তনঃ ১৭৭০.৫৪ বর্গ কিলোমিটার
নদনদীঃ ১৭.৫৩ বর্গ কিলোমিটার
বনভূমিঃ ২৭৩.৪২ বর্গ কিলোমিটার
উপজেলার পরিসংখ্যাগত তথ্য

উপজেলার নাম ইউনিয়নের সংখ্যা মৌজা গ্রাম পৌরসভা ওয়ার্ড মহল্লা
গাজীপুর সদর ১৮৯ ২৪৪ ১ সি.ক. ৬১
কালিয়াকৈর ১৮১ ২৮৩ ১ পৌরসভা
কালীগঞ্জ ৯৩ ১০৫
কাপাসিয়া ১১ ১৬৬ ২৩১
শ্রীপুর ৮১ ১৮৬ ১ পৌরসভা

সূত্রঃ বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো ও সরেজমিন তথ্য সংগ্রহ

জনসংখ্যা ও জনবসতির পরিচয়

মোটঃ জনসংখ্যা ৩৭২৬১১৪ জন ; পুরুষঃ ১৯২৭৭৩৯ জন, মহিলাঃ ১৭৯৮৩৭৫ জন
পুরুষের শতকরা হারঃ ৫১.৭৪%, নারীর শতকরা হারঃ ৪৮.২৬%, শিশুর শতকরা হারঃ৩১.৫৮%, (১-১৮ বছর) জনসংখ্যার ঘনত্বঃ প্রতি বর্গ কিলোমিটার ২১০৪ জন।

গাজীপুরের জনসংখ্যার বড় অংশ মুসলমান। এছাড়া এখানে রয়েছেন হিন্দু, খ্রিষ্টান ও কিছু ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী । পেশাভিত্তিক সম্প্রদয়ের মধ্যে রয়েছে কৃষিজীবী, ব্যবসায়ী, চিকিৎসক, কবিরাজ, শিক্ষক, আইনজীবী, শিল্পকারখানার শ্রমিক ও পরিবহন শ্রমিক ।

গাজীপুরের ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী এবং আদিবাসীদের মধ্যে আছে কোচ বা রাজবংশী, গারো, মুচি, নাপিত, কলু, বেদে, ওঝা প্রভৃতি সম্প্রদায় । শিক্ষার হারঃ ৫৬.৪০% (সরকারি হিসাব অনুযায়ী ) ।

যারা ১নং পোষ্টটি দেখতে মিস করেছেন
তাদের জন্য নিচে লিংক দেয়া হল
গাজীপুর জেলা নামকরনের ইতিহাস ও পরিচিতি- ১ম পর্ব