গাজীপুর জেলার বনভূমি ও গাছপালা পরিচিতি- ৩য় পর্ব

163

গাজীপুর জেলার বনভূমি ও গাছপালা পরিচিতি- ০৩ পর্ব

গাজীপুরের প্রধান ফসল ধান, পাট ও শাকসবজি প্রভৃতি ব্যতীত গাজীপুরের টিলার উপরিভাগের প্রাকৃতিক বনে গজারী, বহেড়া, আমলকি, জলপাই, কড়াই, সোনালু, দাতাই, তিতিজাম, আন্নাই, চাল্লাগুটি, কারজলি, কোলকাটা, মোনকাটা, হাতিশুঁড়, দ-কলস প্রভৃতি বৃক্ষ জন্মে।

গাজীপুর জেলার বনভূমি ও গাছপালা পরিচিতি

অপেক্ষাকৃত নিচু টিলা টেক নামে অভিহিত । আবার কিছু কিছু ঢিবিও রয়েছে । এসব জায়গায় স্বাভাবিকভাবে বিভিন্ন ধরনের বৃক্ষ জন্মে এবং চাষও করা হয় ।গাজীপুরের টেকে ভাওয়ালের উৎকৃষ্ট আনারস জন্মে ।এছাড়া এসব টেকে আম, কাঁঠাল, জাম, তেঁতুল, বরই ইত্যাদির বাগান করা হয় । টিলা টেকের নিম্নাংশের জলাভুমিতে ছন, কাশ, দুর্বা, হোগলা প্রভৃতি স্বাভাবিকভাবে জন্মে । বর্ষায় এসব এলাকা প্লাবিত হয় বলে এখানে শাকসবজির চাষ এবং ধানের চারা লাগানো হয়।

গাজীপুর জেলার বনভূমি ও গাছপালা পরিচিতি

গাজীপুর জেলার বিস্তীর্ণ সমভুমিকে বলা হয় ‘চক’ । চকে সাধারণত পানি উঠেনা । চক হল তিন ফসলী জমি । শ্রীপুরে চককে বলা হয় পাথার ।

গাজীপুর শালবনের জন্য বিখ্যাত । বাংলাদেশের বৃহত্তম এই শালবন বর্তমানে ভাওয়াল ন্যাশনাল পার্ক বা ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান নামে পরিচিত । এখানে সর্বাধিক শাল বা গজারী বৃক্ষ থাকায় এর স্থানীয় নাম ‘গজারী বন’ । এছাড়া এখানে কড়ই, কুম্ভীম, শিরিষ, বহেড়া ও অন্যান্য বৃক্ষ রয়েছে ।

যারা ১ম ও ২য় পোষ্টটি দেখতে মিস করেছেন
তাদের জন্য নিচে লিংক দেয়া হলঃ-
গাজীপুর জেলা নামকরনের ইতিহাস ও পরিচিতি- ১ম পর্ব
গাজীপুর জেলার ভৌগলিক অবস্থান এবং জনসংখ্যা পরিচিতি- ২য় পর্ব