ইতিহাসকাপাসিয়াস্কুল-কলেজ

History of Ghagotia Chala High School | Kapasia

ঘাগটিয়া চালা উচ্চ বিদ্যালয়ের ইতিহাসঃ
বৃটিশ উপনিবেশ শাসনের শেষ দিকে অত্র অঞ্চলের হত দরিদ্র অসহায় ও আধুনিক শিক্ষার প্রতি অনিহাভাব যখন পরিলক্ষিত হয়েছিল, এমন কি ইংরেজী  শিক্ষা বর্জনের নীতি যখন উপমহাদেশের মানুষের মাঝে বিরাজমান

ঠিক তেমনই মূহুর্তে অত্র অঞ্চলের মানুষের মাঝে ইংরেজি শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ইংরেজদের সাথে রাজনীতি, সমাজনীতি, অর্থনীতি ইত্যাদি ক্ষেত্রে প্রতিযোগীতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে অত্র এলাকার আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত আদর্শ মানব
“আলহাজ্ব ফকির আঃ মান্নান” সাহেবের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠা ও পৃষ্ঠপোষকতায় অত্র এলাকার আরও কিছু বিদ্যোৎসাহী ব্যাক্তিবর্গ।
যাদের মধ্যে সর্বাগ্রে উল্লেখ যোগ্য হলেন
মরহুম নায়েব আলী সরকার (বিদ্যালয়ের জন্য জমি দান করতে উদ্ধুদ্ধ হলে সাথে অারও
মরহুম ডাক্তার আবদুল আউয়াল,
মরহুম আবু সাইদ মিয়া,
মরহুম আলহাজ্ব সৈয়দ আলী আকন্দ,
মরহুম বুরুজ আলী পন্ডিত,
মরহুম আবদুল গফুর,
মরহুম আলহাজ্ব শরিয়ত উল্লাহ আকন্দ,
মরহুম আলহাজ্ব কেমর উদ্দিন ও
মরহুম আব্বাস উদ্দিন মাঝি গনের সার্বিক সহযোগিতা ও প্রচেষ্টায় ঘাগটিয়া চালায় (বর্তমান অবস্থানে) একটি
(M.E School) অর্থাৎ মাইনর ইংলিশ স্কুল ১৯৪৬ খ্রি: প্রতিষ্ঠা করেন।
যার প্রথম প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন জনাব মো: কবীর হোসেন (০১-০১-১৯৪৬ থেকে ০১-০৬-১৯৫৯ পর্যন্ত)।
পরবর্তিতে জুনিয়র স্কুল হিসেবে স্বীকৃতি পেলে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন যথাক্রমে জনাব মো: ফজলুর রহমান, জনাব মো: দানেশ, জনাব মো: আবদুল আউয়াল এবং মরহুম আলহাজ্ব আনসার আলী মাষ্টার।
পরবর্তিতে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে রূপান্তরিত হলে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পান জনাব মো: শহিদুর রহমান সাহেব এবং পর্যায় ক্রমে অধিকতর যোগ্য অভিজ্ঞ, সাংগঠনিক শক্তি সম্পন্ন মেধবী প্রধান শিক্ষক গনের নেতৃত্বে এবং কার্যকরী কমিটির যোগ্য দিক নির্দেশনায় বিদ্যালয়টি ক্রমে ক্রমে উন্নতির দিকে অগ্রসর হতে থাকে।

১৯৬৮ ইং সনে বিদ্যালয়টি থেকে ১ম এস.এস.সি. পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে শিক্ষার্থী উত্তীর্ন হলে বিদ্যালয়টির কলেবর বৃদ্ধি পেতে থাকে। স্বাধীনতা পরবর্তী বিদ্যালয়টির পৃষ্ঠপোষকতা করেন অত্র এলাকার কৃতি সন্তান বাংলাদেশের প্রথম এটর্নি জেনারেল মরহুম ফকির সাহাব উদ্দিন আহম্মেদ। তাহার ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় বিদ্যালয়টি আরও একধাপ এগিয়ে যায়।

পরবর্তীতে আশির দশকে অত্র এলাকার আরো এক বিদ্যোৎসাহী ব্যাক্তি সমাজ সেবক মরহুম আবু তাহের সাহেবের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মরহুম আলহাজ্ব ফকির আবদুল মান্নান সাহেব কে স্কুলের কার্যকারী পর্ষদের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়ার পর তার নিজস্ব অর্থায়নে বিদ্যালয়ের জন্য ছয় (৬) বিঘা জমি ক্রয় এবং বিদ্যালয়ের মাঠের মধ্য থেকে সরকারী প্রথমিক বিদ্যালয়টি বর্তমান অবস্থায় নিজস্ব অর্থায়নে স্থানান্তর এর পর বিদ্যালয়টি আর ও একধাপ এগিয়ে যায়।
এবং দিন দিন বিদ্যালয়টির অবকাঠামোগত উন্নয়ন, অধিকতর যোগ্যতা সম্পন্ন শিক্ষকগনের ঐকান্তিক চেষ্টা ও সাধনায় প্রধান শিক্ষক সাহেবের যোগ্যতম নেতৃত্বে পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল সন্তোষজনক হওয়ায় বিদ্যালয়টির গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা অত্র এলাকার জনসাধারনের মধ্যে বোধগম্য হয়ে উঠে এবং তাদের অংশিদারিত্ব আরো বৃদ্ধি পেতে থাকে।
যার ফলে আলহাজ্ব ফকির আ: মান্নান সাহেবের জীবদ্দশায় তার যোগ্য উত্তর সূরী কাপাসিয়া উপজেলার উন্নয়নের রূপকার ১৯৯১ সালে আমাদের কাপাসিয়ার সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য ও মাননীয় মন্ত্রী (পাট মন্ত্রনালয়) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) আ.স.ম. হান্নান শাহ পি.এস.সি. মহোদয়ের আন্তরিক ইচ্ছা ও প্রচেষ্ঠায় বিদ্যালয়টিতে একটি এস.এস.সি. পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করিলে বিদ্যালয়টির উন্নতি আর ও এগিয়ে যায়।

অত্র এলাকার মানুষের মনের আশাটি পূর্ণ হতে থাকে। পরবর্তীতে ১৯৯৩ সালে বিধির বিধানে অত্র এলাকার মানুষের প্রানের মানুষ এবং বিদ্যালয়টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক আলহাজ্ব ফকির আ: মান্নান সাহেব মৃত্যু বরন করলে তারই আর এক যোগ্য উত্তর সূরী বিচার পতি আলহাজ্ব শাহ্ আবু নাঈম মমিনূর রহমান সাহেব বিদ্যালয়ের কার্যকরী পর্ষদের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহন করেন এবং ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) আ.স.ম. হান্নান শাহ পি.এস.সি. মহোদয় দাতা সদস্য হিসাবে কার্যকরী পর্ষদের অর্ন্তভূক্ত হলে দুই জনের যৌথ প্রচেষ্টায় এবং বর্তমান প্রধান শিক্ষক আনারুজ্জামান সাহেবের পরিচালনায় বিদ্যালয়টির বর্তমান অবস্থানে উন্নীত হওয়ায় আজ “ঘাগটিয়া চালা উচ্চ বিদ্যালয়টি” কাপাসিয়া উপজেলার একটি উল্লেখ যোগ্য প্রতিষ্টানের তালিকায় নাম লিখাতে সক্ষম হয়েছে।

বর্তমান সভাপতি, দাতা সদস্য, প্রধান শিক্ষক ও কার্যকরী পর্ষদের সঠিক দিক নির্দেশনায় যোগ্য ও অভিজ্ঞ শিক্ষকগনের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় বিদ্যালয়টি শিক্ষাক্রম, খেলাধুলায় ও সহপাঠ ক্রমিক কার্যক্রমে বিশেষ দক্ষতার পরিচয় বহন করছে। বিদ্যালয়টি দিন দিন বৃত্তি পরীক্ষায় এবং পাবলিক পরীক্ষা (জে.এস.সি. ও এস.এম.সি.) তে কাপাসিয়া উপজেলায় শ্রেষ্ঠত্বের দাবী রাখে। আমার বিশ্বাস বিদ্যালয়টির কার্যক্রম এভাবে চলতে থাকলে খুব স্বল্প সময়ের মধ্যে বিদ্যালয়টি কাপাসিয়া উপজেলায় ১ম শ্রেণীর একটি প্রতিষ্ঠানে পরিনত হবে। সফল হবে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি যারা মেধা, শ্রম, অর্থ দিয়ে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন তাদের ইচ্ছা।

ঘাগটিয়া চালা উচ্চ বিদ্যালয়ের ইতিহাস
(Ghagotia Chala High School)
রচনায়ঃ মোঃ খোরশেদুল আলম
সিনিয়র সহকারী শিক্ষক,
ঘাগটিয়া চালা উচ্চ বিদ্যালয়।
রাইট অফ সোর্স Kapasia Upazila

Facebook Comments

Related Articles

Back to top button